সাম্প্রতিক পোস্ট

সিংগাইরে কৃষি প্রতিবেশ বিজ্ঞান শিখন কেন্দ্র উদ্বোধন

সিংগাইর মানিকগঞ্জ থেকে সঞ্জিতা কির্ত্তুনীয়া
সম্প্রতি মানিকগঞ্জে সিংগাইর উপজেলার তালেবপুর ইউনিয়নের মজলিশপুর গ্রামের কৃষক নুরুল হকের বাড়িতে কৃষকদের জ্ঞান, দক্ষতা, অভিজ্ঞতা, সম্পদ বিনিময় ও সম্প্রসারণের লক্ষ্যে কৃষি প্রতিবেশ বিজ্ঞান শিখন কেন্দ্র উদ্বোধন ও গ্রামসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মজলিশপুর, কাশিমপুর,বাঘারচর ও রাজেন্দ্রপুর গ্রামের কৃষক কৃষাণীদের সক্রিয় অংশগ্রহণের মধ্য দিয়ে অনুৃষ্ঠানটি শুরু হয়।


উক্ত অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিংগাইর উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-সহকারী উদ্ভিদ সংরক্ষণ অফিসার মোহাম্মদ সরবেশ আলী, উপ সহকারী কৃষি অফিসার মোহাম্মদ আব্দুস সালাম, তালেবপুর ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের জনপ্রতিনিধি মোঃ সেলিম হোসেন, বারসিক মানিকগঞ্জের আঞ্চলিক সমন¦য়কারী বিমল রায়, প্রোগ্রাম সমন্বয়ক শিমুল কুমার বিশ্বাস, মাসুদুর রহমান, মাঠ সহায়ক অনন্যা আক্তার, সঞ্জিতা কির্ত্তুনীয়া প্রমুখ।


উপ-সহকারী উদ্ভিদ সংরক্ষণ অফিসার মোহাম্মদ সরবেশ আলী প্রথমেই বারসিক’র কার্যক্রমকে অভিন্দন জানান। তিনি বলেন, ‘বারসিকের এই উদ্যোগ কৃষকদের পরিবেশসম্মত কৃষি চর্চাকে আরও বেগবান ও সহযোগিতা করবে।’ তিনি কৃষকদের উদ্দেশ্যে বলেন মানুষের যেমন গ্যাস্ট্্িরক, আলসার, ও ক্যানসারসহ বিভিন্ন ধরনের রোগ হচ্ছে তেমনি মাত্রাতিরিক্ত কীটনাশক ও রাসায়নিক সার ব্যবহারের ফলে মাটিরও বিভিন্ন রোগ হচ্ছে। ফসলের ক্ষতিকর পোকা দমন করতে গিয়ে আমরা বন্ধু পোাকাগুলোও মেরে ফেলছি। ফলে আমাদের উৎপাদন ব্যবস্থা অনেক বেশি হুমকির মুখে পড়ছে।’ জনপ্রতিনিধি মোঃ সেলিম হোসেন তার বক্তব্যের মধ্য দিয়ে কৃষি প্রতিবেশ বিজ্ঞান শিখন কেন্দ্রের শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করেন এবং বারসিককে ধন্যবাদ জানান ভালো একটা উদ্্েযাগ গ্রহণ করার জন্য। অনুষ্ঠানের সভাপতি মোঃ আব্দুর রাজ্জাক বলেন, বারসিকের এ উদ্যোগ তাদের অনেক উপকারে আসবে তারা অনেক কিছু শিখতে পারবেন। কৃষি কাজে তাদের সক্ষমতা বৃদ্ধি পাবে।তার সমাপনি বক্তব্যের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সমাপণ হয় এবং কৃষকরা কৃষক শিখন কেন্দ্র পরিদর্শন করেন।


উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সকলকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়ে বারসিক কর্মকর্তা মাসুদুর রহমান বলেন, ‘আমরা চাই পরিবেশ এবং প্রতিবেশের কোন ক্ষতি না করে এবং খাদ্যের গুণগত মান ঠিক রেখে কৃষি চর্চা অব্যাহত রাখতে। পরিবেশের যে উপাদানগুলো দেখতে পাই শুধু সেগুলো নয় অদেখা অনেক প্রাণের সাথে আমাদের সকল প্রাণের একটা আন্তঃসম্পর্ক আছে সেই মধ্যকার সম্পর্কটাই হলো প্রতিবেশ। তাই পরিবেশ এবং প্রতিবেশ কে ঠিক রেখে আমাদের চাষাবাদ করতে হবে এবং নিরাপদ খাদ্য উৎপাদন করতে হবে।’ শিমুল কুমার বিশ^াস বলেন, ‘আশা করছি মজলিশপুর গ্রামের এই কৃষি প্রতিবেশ বিজ্ঞান শিখন কেন্দ্র আপনাদের পরিবেশসম্মত এবং প্রতিবেশ বিজ্ঞান ভিত্তিক কৃষি চর্চা বাড়াতে ভূমিকা রাখবে। পরিবেশের কোন ক্ষতি না করে নিজস্ব জ্ঞান দক্ষতা ও লোকায়ত চর্চা কাজে লাগিয়ে পরিবেশসম্মত কৃষি কাজে আপনাদের দক্ষতা আরও বৃদ্ধি পাবে এবং কৃষক পর্যায়ে আপনাদের মধ্যে সম্পর্কের গভীরতা বাড়বে।’


আঞ্চলিক সমন্বয়কারী বিমল রায় বলেন, ‘নিজেরা সুস্থ থাকতে এবং পরিবারকে সুস্থ রাখতে জৈব কৃষির বিকল্প নেই। প্রথমত ছোট আকারে এবং পারিবারিকভাবে জৈব উপায়ে চাষাবাদ চর্চা আরও বাড়াতে হবে। পোকামাকড় দমনে জৈব বালাইনাশক তৈরি করে ব্যবহার করতে হবে এবং বৈচিত্র্যময় ফসলের চাষ বাড়াতে হবে তার জন্য এই শিখন কেন্দ্রটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে তিনি মনে করেন।

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: