সাম্প্রতিক পোস্ট

ফল ও বৃক্ষ মেলায় বারসিক’র ২য় স্থান লাভ

মানিকগঞ্জ থেকে মো. মাসুদুর রহমান

সম্প্রতি মানিকগঞ্জ সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে মানিকগঞ্জ জেলা প্রশাসন, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর ও বন বিভাগ কর্তৃক উদ্যৌাগে, মাননীয় মন্ত্রী,স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ জাহিদ মালেক স্বপন (এমপি) এর স্টল পরিদর্শন এবং মানিকগঞ্জের জেলা প্রশাসক এস এম ফেরদৌসের বক্তব্যে মানিকগঞ্জে ১০ দিন ব্যাপি ফল ও বৃক্ষ মেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

67403667_885003645195716_3772135034362789888_n
কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর এর আমত্রণে বরাদ্দকৃত স্টলে বারসিক’র কর্ম এলাকার কৃষক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ও কৃষক গবেষকদের অংশগ্রহণে একটি প্রাণবৈচিত্র্য সমৃদ্ধ বাড়ির প্রতিকৃতি (নমুনা) প্রতিষ্ঠা করা হয়। যেখানে ছিল পুকুরে স্থানীয় জাতের মাছ (কৈ, শিং, টাকি, গুতুম) সবজির মাঁচা, বাঁশও বেতের ঝোপ, স্থানীয় জাতের ফলদ বৃক্ষসহ নানারকমের ঔষধি বৃক্ষের চারা, গরুর খাবারের গোড়া, খামারজাত সার, আপনজালা উদ্ভিদ, মুরগির ডিম ফোটাতে হাজলের ব্যবহার, পতিত জায়গায় মসলা চাষ, বীজ ব্যাংক, বসবাসের ঘর এবং খরিপ ২ মৌসুমের স্থানীয় জাতের ফল নারিকেল, কাঁঠাল, বেল, বীচা কলা, কদবেল, কামরাংগা, কাগজী লেবু, করমচা, পেপে, আতা ফল, বিলেতি গাব, সফেদা, মাল্টা, কমলা লেবু, পেয়ারা, জাম্বুরা, ডৈইয়্যা, গাব, বেতইল, জল ডুমরা এবং আউশ, আমন ও বোরো মৌসুমের ৯৩টি জাতের ধান।

মেলায় প্রতিদিন দর্শনার্থীদের ভিড় ছিল চোখে পড়ার মত। দর্শকদের নিকট অত্যন্ত আকর্ষণীয় ছিল পেট্রিডিসে রাখা বিভিন্ন নামের/জাতের ধান। ৪ জন কৃষক ৩ প্রকার ধান বীজের চাহিদার কথা জানান। একজন ব্যক্তি জৈব কৃষির চর্চা স্বেচ্ছায় দেখার উদ্দেশ্যে সিংগাইর উপজেলার (কর্ম এলাকার) জৈব কৃষি অনুশীলনকারী কৃষকদের ঠিকানা নিয়েছেন। সরকারি কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন পেশাজীবির ৩২জন ব্যক্তি রেজিষ্টার খাতায় মন্তব্য করেছেন।

এছাড়া দর্শনার্থীগণ স্বেচ্ছায় বরেন্দ্র কৃষক বীজ ব্যাংক এবং ফসলের বন্ধু ও শত্রু পোকা পরিচিতি সম্বিলিত ২৩৫টি লিফলেট পড়েছেন এবং নিয়ে গেছেন। মেলায় বারসিক’র কৃষক সংগঠনের সদস্যদের ব্যতিক্রম আয়োজনের জন্য দর্শকদের মতামত ও কর্তৃপক্ষের বিবেচনায় বারসিক ২য় স্থান অধিকার করেছে।

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: