সাম্প্রতিক পোস্ট

পৃথিবী সবুজ রাখতে একটি গাছ রোপণ অনেক গুরুত্বপূর্ণ

সিংগাইর মানিকগঞ্জ থেকে শাহীনুর রহমান
‘একটাই পৃথিবীঃ প্রকৃতির ঐকতানে টেকসই জীবন’-এ প্রতিপাদ্যর আলোকে বারসিক’র সহযোগিতায় সিংগাইর উপজেলার বলধারা ইউনিয়নের কালিয়াকৈর খান উচ্চ বিদ্যালয়ে আয়োজনে বিশ^ পরিবেশ দিবস উদযাপন উপলক্ষে শিক্ষার্থীদের সাথে আলোচনা সভা ও বৃক্ষ রোপণ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ যুবায়ের হোসেন খানের সভাপত্বিতে পরিবেশ দিবসের আলোচনায় বক্তব্য রাখেন সহকারি প্রাধান শিক্ষক মোঃ সিরাজ উদ্দিন শিকদার, সহকারি শিক্ষক মোঃ দুলাল হোসেন, মোঃ আশরাফুল ইসলাম, মোঃ আব্দুস ছালাম,শিক্ষার্থী মোঃ রাকিব হোসেন ও সাইফুল ইসলাম। আরো উপস্থিত ছিলেন,বারসিক কর্মকর্তা শারমিন আক্তার।


আলোচনায় শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে প্রধান শিক্ষক যুবায়ের হোসেন খান বলেন, ‘পরিবেশ ও মানুষের মধ্যে একটি নিবিড় সম্পর্ক রয়েছে। পরিবেশকে প্রাণবৈচিত্র্য ও জীব বৈচিত্র্যর ভান্ডার, ও মানুষের টিকে থাকার একমাত্র ধারক-বাহক এবং ভবিষ্যতের আশ্রয় হিসাবে বিবেচনা করা হয়। যদি পরিবেশ প্রতিকূল হয় তাহলে মানুষসহ অন্যান্য উদ্ভিদ ও প্রাণী-জীবনের বিকাশ হবে না বরং জীবন বাধাগ্রস্ত হবে। আমরা প্রকৃতি ও পরিবেশের সাথে যে আচরণ করবো প্রকৃতি আমাদের তাই ফেরত দিবে। তিনি আরো বলেন, ‘জনসংখ্যা বৃদ্ধি, নির্বিচারে বৃক্ষনিধন ও বনভূমি উজাড়, প্রাকৃতিক সম্পদের অপব্যবহার, সার ও কীটনাশকের মাত্রাতিরিক্ত ব্যবহার, শিল্প-কলকারখানার বর্জ্য, গাড়ির বিষাক্ত ধোঁয়া, ওজোন স্তারের ক্ষয়, প্লাস্টিক দ্রব্যের ব্যবহার, পৃথিবীর ক্রমবর্ধমান উষ্ণায়ন, নিঃশেষিত ভূগর্ভস্থ জ্বালানি ও পানির পরিমাণ, অপরিকল্পিত শিল্পায়ন ও নগরায়ন এবং অতি আধুনিকতার জেরে পৃথিবীজুড়েই প্রতিনিয়ত পরিবেশ বিপন্ন হচ্ছে। অদূর ভবিষ্যতে মানবসভ্যতাকে পরিবেশগত বিশাল সংকটের মধ্যে পড়তে হবে।পরিবেশের ভারসাম্য রাখতে হলে মানুষ সহ বিভিন্ন প্রানের টিকে থাকার জন্য বেশী করে গাছ লাগাতে হবে।’


সহকারী প্রধান শিক্ষক মোঃ সিরাজ উদ্দিন শিকদার বলেন, ‘আমাদের চারপাশের নদীগুলো আমাদের পরিবেশের অংশ। কিন্তু দূষণের কারণে প্রাকৃতিক নদীগুলো এখন মৃত। কৃষিতে রাসায়নিক সার বিষ, কীটনাশক ব্যবহার করার ফলে নদীর মাছসহ জলজ অন্যান্য প্রাণীর বেঁচে থাকার পরিবেশ ন্ষ্ট হচ্ছে তেমিন নদীর দূষণ বেড়ে যাচ্ছে। এ কারণে ব্যাপক হারে স্বাস্থ্য সমস্যা সৃষ্টি করছে। বর্তমানে যে কোন যত্রতত্র গৃহস্থালি বর্জ্যগুলো নদীতে ফেলা হচ্ছে যত্রতত্র। বলতে গেলে পরিবেশদূষণে গ্রামীণ জীবন এখনও অতিষ্ঠ। পরিবেশ পরিবেশ রক্ষায় আমাদের সকলেরই এগিয়ে আসতে হবে।

বারসিক আঞ্চলিক সমন্বয়কারি বিমল রায় বলেন, প্রকৃতি ও পরিবেশ আজ সঙ্কটের মুখোমুখি। এ সঙ্কট বিশেষ কোনো গোষ্ঠী, দেশ বা জাতির নয় সমগ্র মানব জাতির। প্রাকৃতিক ও মানব সৃষ্ট বিভিন্ন কর্মকান্ডের ফলে বিপন্ন পরিবেশ। মানুষের বসবাস উপযোগী বিশ্ব গড়ার লক্ষ্যে চাই প্রকৃতিকে সজীব রাখতে হবে এবং বৃক্ষ রোপন করতে হবে।নারী নির্যাতন,বাল্য বিবাহ,মাদক থেকে আমাদের যুব সমাজ রক্ষা করতে হবে।আমি আপনাদের অত্যন্ত কৃতজ্ঞতার সাথে জানাচ্ছি ৫ জুন ২০২২ তারিখে বিশ^ পরিবেশ দিবসে পরিবেশ রক্ষা ও উন্নয়নে বিশেষ অবদানের জন্য প্রতিষ্ঠান হিসেবে বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা বারসিক জাতীয় পরিবেশ পদক – ২০২১ অর্জন করে। পরিবেশ বিষয়ক শিক্ষা ও প্রচার ক্যাটাগরিতে প্রাতিষ্ঠানিক পর্যায়ে বারসিক এই পুরুষ্কার পায়। বারসিক’র এই অর্জনে সকল উদ্যোগী জনগোষ্ঠী, পেশাজীবী সংগঠন, যুব সংগঠ’ন যারা বারসিক’র কাজের সাথে যুক্ত থেকে পরিবেশ রক্ষায় অবদান রাখছেন তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই।’
শিক্ষার্থী সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘পৃথিবী একটাই। আমাদের নিরাপদ জীবনের জন্য পৃথিবীটাকে আমাদের সবুজ রাখতে হবে। নতুন প্রজন্মকেই এর দায়িত্ব গ্রহণ করতে হবে।’ তিনি আরো বলেন, ‘প্রকৃতির সাথে সামঞ্জস্য রেখে প্রকৃতির প্রতিটি উপদানের প্রতি আমাদের যতœশীল হতে হবে। আমরা বাড়ির আশে পাশে প্রত্যেকেই একটি করে গাছ লাগাতে পারি। পৃথিবী সবুজ রাখতে একটি গাছ রোপণ অনেক গুরুত্বপূর্ণ। তাই আমাদের সকলের স্লোগান হোক একটি করে বৃক্ষ রোপণ করি সবুজ প্রথিবী গড়ি।’


উল্লেখ্য আলোচনা শেষে বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে ৫ টি কৃষ্ণচূড়া গাছ রোপণ করা হয়।

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: